var uid = '155239'; var wid = '331945'; প্রতিবেশি বৌদির ছেলের সামনে বৌদির সাথে হোলি খেলা – Telugu Sex Story | Telugu boothu kathalu | Telugu Sex Stories 2018 ১ – Telugu Sex Stories
প্রতিবেশি বৌদির ছেলের সামনে বৌদির সাথে হোলি খেলা – Telugu Sex Story | Telugu boothu kathalu | Telugu Sex Stories 2018 ১



Bangla choti world – Telugu Sex Story | Telugu boothu kathalu | Telugu Sex Stories 2018 আজ ২০১৭ এর হোলি, আমি এখন কলকাতা থেকে অনেক দূরে বাইরে আছি. আজ থেকে ঠিক এক বছর আগের একটা ঘটনা হঠাৎ মনে পরে গেলো আমার পাড়ার বৌদির একটা ফোনে. সত্যি সেই দিনটার কথা মনে করলে আজ ও আমি নিজেকে কংট্রোল করতে পারি না. এমন কী হয়েছিলো সেদিন হোলি তে? এটাই আপনাদের হয়ত এখন জানতে খুব ইছা করছে. ওকে আর বেসি সাসপেন্স দেবো না আপনাদের. এবার স্টোরীটা স্টার্ট করা যাক. নাম – Telugu Sex Story | Telugu boothu kathalu | Telugu Sex Stories 2018 রিতাম দাস অনেকেই অমল দাস নামেও চেনেন. মার্চ ২০১৬: আমি চাকরি জয়েন করেছি ২০১৪ তে. সাউথ কলকাতাতে নিজের একটা ফ্ল্যাটে একা থাকি. আমার অফীস কলকাতাতেই. আমি বাচেলার. আমাদের সামনের বিল্ডিংগে এক মহিলা থাকেন, বয়স প্রায় ২৮-৩০ হবে. আমার বয়স তখন ২৩. জানি না কেনো ছোট থেকেই আমার নিজের থেকে বড়ো মেয়েদের ওপর একটা দুর্বলতা আছে. বৌদিকে মাঝে মাঝেই দেখি. বৌদি বেশ সুন্দরী, ফর্সা, একটু ফ্যাটী টাইপের. বৌদির ওপর আমার একটা দুর্বলতা আছে. আমি অনেক রকম বাহানা খুজতে থাকি বৌদির সাথে কথা বলার জন্য. বৌদির কথা গুলো বেস ডীসেংট আন্ড মিস্টি টাইপের. কিন্তু বৌদির চোখ অন্য কথা বলে. বৌদি চোখে কেমন যেন একটা আকর্ষন, যেন মনে হয় কিছু একটা চাইছেন. হোলির দিনে আমি ফ্ল্যাটে একা চ্ছিলাম. আমার আস পাসের বন্ধুরা আমার ফ্ল্যাটে এসে আমাকে রং মাখিয়ে গেলো. আমি দরজাটা বন্ধ করতে গিয়ে দেখি ওই বৌদি জানালা দিয়ে আমার ফ্ল্যাটের দিকে তাকিয়ে আছেন. চোখা চোখি হতেই উনি মুচকি হাস্‌লেন. আমি ইশারা করলাম, আপনি রং খেলবেন না? বলতে বলতেই বৌদির স্বামী আর তার কিছু বন্ধু এলো বৌদির বাড়িতে. বৌদিকে রং মাখলো. আমি নিজের রূমে বসে কংপ্যূটারে কাজ করছি. প্রায় ঘন্টা খানেক বাদে দেখলাম ওনারা সবাই চলে গেলেন এমনকি বৌদির স্বামীও. আমার মাথাতে তখন একটা বুদ্ধি এলো. আমি পাসের দোকান থেকে রং কিনে সোজা বৌদির বাড়ি চলে এলাম. ডোর নক করতেই বৌদিকে দেখে বললাম, আমি ভাবলাম আপনাকে রং মাখবো কিন্তু আপনি তো আগে থেকেই রং মেখে নিয়েছেন. বৌদি: হ্যাঁ, আমার বর আর ওর বন্ধুরা এসে মাখিয়ে গেলো. আমি: ওহ তাহলে আর কী আমি যাচ্ছি. বৌদি : না না ভেতরে এসো, একটু মিস্টি মুখ করে যাও. আমি: ওকে বৌদি মিষ্টি আনতে গেলো। বৌদির নাইটি থেকেবাদ দিয়ে শরীরের যে যেই অংশ দেখা যাচ্ছে সবই লাল আর সবুজ রংএ ঢাকা. মিষ্টি মুখ করে বললাম, এবার আপনাকে রং মাখবো. বৌদি: সবই তো রংএ ভর্তী, আর কোনো জায়গা নেই রং লাগাবার. আমি: আছে বৌদি: কোথায়? আমি বৌদির কাছে এগিয়ে গিয়ে হাতে রং ঢেলে জল দিয়ে মাখলাম, বৌদির সামনে হাঁটু গেঁড়ে বসলাম. নাইটির তলা দিয়ে হাত ঢুকিয়ে সোজা থাই অবধি রং মাখিয়ে দিলাম, বৌদি চোখ বন্ধ করে নিলো. আমি আবার হাতে রং মাখিয়ে বৌদির পেছনে এসে সোজা হাতটা বৌদির নাইটির ওপর দিয়ে হাত ঢুকিয়ে পিঠে সব রং লাগিয়ে দিলাম. বৌদি: শয়তান ছেলে, এবার বাড়ি যাও. রং মাখানোর সাধ মিটলো? আমি: এখন ও আরও কিছু জায়গা বাকি আছে. বৌদি: আর কিছু নেই. আমার ছেলে আছে সামনে. প্লীজ আর না… আমি বৌদির পেছনে এসে বৌদির গলাতে রং মাখাতে মাখাতে হাত দুটো সোজা ভেতরে ঢুকিয়ে দিলাম. বৌদি বলল, এ কী করছ? ছাড়ো ছাড়ো প্লীজ.আমি দুটো হাতে দুধ দুটো ধরে ভালো করে রং মাখিয়ে দিলাম আর সেই বহানাতে টিপেও দিলাম বেস জোরে… বৌদি বলল, প্লীজ আর না আমাকে ছাড়ো এবার..আমি আবার রং নিয়ে বৌদির নাইটিটা এক ঝটকাতে কোমর অবধি তুলে প্যান্টির পেছন দিকে হাত ঢুকিয়ে পাছাতে আর ব্যাক থাইয়ে রং মাখিয়ে দিলাম. উফফফ কী স্মূদ স্কিন.. ছাড়তেই ইচ্ছা করছিলো না. বৌদির সাদা ফর্সা শরীরে গ্রীন কালারে বৌদি কে আরও এট্রাক্টিভ লাগছিলো. আমি ভাবলাম এই সেডাকসানেই হয়য়ত কাজ হবে. কিন্তু বৌদি বলল, যাও এবার. অনেক হলো তোর নাটক আর রং মাখানো. আমি বললাম এখনও কিছু বাকি আছে. বৌদি শুনলো না. বলল, এবার আমি রেগে যাচ্ছি কিন্তু, এই বলে আমাকে বলল প্লীজ. যাও. আমি চলে গেলাম. নিজের ফ্ল্যাটে এসে রং ধুলাম নিজের শরীরের. তারপর লান্চ করে এসে ঘুমিয়ে পরলাম. সন্ধে বেলাতে আমার রূমে বেল বাজলো. দরজা খুললাম. দেখলাম গম্ভীর মুখে বৌদি আমার সামনে দাড়িয়ে. আমি: কী হলো বৌদি? বৌদি: তুমি যা রং মাখিয়েছো, উঠছে না. আমার স্বামী দেখলে আমি ঝামেলায় পরে যাবো আমি: ও ফেরেনি এখনও? বৌদি: ফিরেছে কিন্তু এতো ড্রিংক করেছে ঘুমিয়ে আছে আমি: ভেতরে এসো. বৌদি ভেতরে আসার পর বললাম নাইটিটা খোলো. বৌদি: কী বলছও তুমি? আমি: না হলে রং তোলা যাবে না. বৌদি: আমি সঙ্গে আরেকটা নাইটি নিয়ে এসেছি, এটা পরেই স্নান করে নেবো। আমার বাথরূমে ঢুকে শাওয়ার চালু করলাম. বৌদির থাইয়ে সাবান ঘষে ঘষে রং তুললাম. বৌদি কে প্যান্টিটা খুলতে বললাম. বৌদি লজ্জা পেয়ে বলল, পড়ে আসি নি” আমি বৌদির নাইটিটটা আস্তে আস্তে তুলে দিচ্ছি ওপরে, বৌদি চোখ বন্ধ করে পেছন দিকে ঘুরে গেলো. বৌদির দুধে সাবান ঘষে দিতে লাগলাম আর জোরে জোরে টিপতে আর কচলাতে লাগলাম. আমার হাতের প্রেশার পড়ার সাথে সাথে বৌদির নিশ্বাস ফুলে উটছে, মনে হছে বৌদির দম বন্ধ হয়ে যাচ্ছে অনেকখন চেস্টার পর রং ৯০% উঠলো. এর পর ব্যডীতে একটা পার্টে বাকি থাকলো সেটা হলো বৌদির ফর্সা মোটা মোটা থল থলে নরম ৩৬ সাইজ় এর পাছা. বৌদি কে বললাম, ড্যগী স্টাইলে বোসো. বৌদি আমার দিকে রাগ আর লজ্জা মাখা দৃষ্টিতে তাকালো একবার. আমি দুস্টুমি করে বললাম, ড্যগী স্টাইল জানো না? করো নি বুঝি কোনো দিন? বৌদি কিছু না বলে ড্যগী স্টাইলে বসলো. বৌদির শরীরটা অনেকক্ষন নিয়ে খেলা করার পর আমার ধনটা ফুল খাঁড়া হয়ে গেছে. বৌদি ড্যগী স্টাইলে বসার পর বৌদির ৩৬ সাইজ়ের ফর্সা দুদু দুটো ঝুলে আছে কিন্তু আমার সাহস হছে না সেদিকে এগানোর. আমি বৌদির পাছা থেকে রং ধুয়ে দিতে লাগলাম.The post প্রতিবেশি বৌদির ছেলের সামনে বৌদির সাথে হোলি খেলা – Telugu Sex Story | Telugu boothu kathalu | Telugu Sex Stories 2018 ১ appeared first on Bangla Choti Kahini.Telugu Sex Stories 2016: ;
telugu sex stories | sex in telugu | indian sex | indian sex stories | hot telugu stories | hot sex stories | telugu sex videos | new sex stories | aunty sex stories | telugu aunty | telugu aunty sex | sex kathalu | telugu kathalu | telugu sex kathalu | free sex stories | sex stories pdf | latest sex stories